নিরাপত্তা চাদরে ঢেকে দেওয়া হয়েছে বিশ্ব ইজতেমা ময়দান

নিউজটি শেয়ার করুন

আজকালের কন্ঠ ডেস্ক : বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের মতো দ্বিতীয় পর্বেও নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (জিএমপি) কমিশনার মোল্যা নজরুল ইসলাম।
বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে টঙ্গী শহীদ আহসানুল্লাহ মাস্টার স্টেডিয়ামে স্থাপিত পুলিশ কন্ট্রোলরুমে ব্রিফিংকালে এ কথা বলেন তিনি।

বিশ্ব ইজতেমায় যাওয়ার পথে সাত শতাধিক রোহিঙ্গা আটক

জিএমপি কমিশনার বলেন, বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের মতো দ্বিতীয় পর্বেও ব্যাপক নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এরইমধ্যে পুরো বিশ্ব ইজতেমাকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেওয়া হয়েছে। ইজতেমাকে কেন্দ্র করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী প্রথম পর্বে যেসব নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছিল এবারও ঠিক আগের মতোই নিরাপত্তা ব্যবস্থা অটুট থাকবে।

তিনি বলেন, আগত মুসল্লিদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে পুরো ইজতেমা ময়দানকে কয়েকটি সেক্টরে ভাগ করে নিরাপত্তা কার্যক্রম পরিচালিত হবে। এ উপলক্ষে ময়দানের আশপাশে ৭ হাজার ৫৩৯ জন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য দায়িত্ব পালন করবেন।

ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব: বন্ধ-ডাইভারশন থাকবে যেসব সড়ক

পুলিশ কমিশনার আরও বলেন, বিশ্ব ইজতেমায় আগত বিদেশি মুসল্লিদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থায় নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। সার্বক্ষণিক দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমার আয়োজকদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা হচ্ছে।

এর আগে ১৩ জানুয়ারি শুরু হয়ে ১৫ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে প্রথম পর্বের (জুবায়েরপন্থি) বিশ্ব ইজতেমার সমাপ্তি ঘটে। মাঝে চারদিন বিরতি দিয়ে ২০ জানুয়ারি দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাযের অনুসারী (মাওলানা সাদপন্থি) মুসল্লিরা বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে অংশ নিচ্ছন।

ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের জন্য ময়দান বুঝে নিলেন সাদ অনুসারীরা

২২ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে এবারের বিশ্ব ইজতেমা শেষ হবে। ২০২০ সালে ৫৫তম বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হওয়ার পর করোনা মহামারির কারণে গত দুই বছর ২০২১ ও ২০২২ সালে ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়নি।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »