দশমিনায় সরকারি গাছ চুরির অভিযোগ

নিউজটি শেয়ার করুন

মো. মোশারফ হোসেন দশমিনা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি : পটুয়াখালীর দশমিনায় বন বিভাগের যোগসাজশে কেটে রাখা শতাধিক বিভিন্ন প্রজাতির সরকারি গাছ চুরির অভিযোগ উঠেছে যুবলীগ নেতাসহ স্থানীয়দের বিরুদ্ধে।

এ ব্যাপারে সোমবার উপজেলার বহরমপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ আদমপুর গ্রামের বাসিন্দা আবদুল মান্নান উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।

লিখিত অভিযোগে বলা হয়, দীর্ঘ দেড় বছর আগে উপজেলার বহরমপুর ইউনিয়নের আদমপুর বাজার থেকে একই এলাকার শাহজাহান খানের বাড়ি পর্যন্ত দেড় কিলোমিটার বেরী বাঁধ সড়ক পাঁকা করার সময় সড়কটি প্রশস্ত করার প্রয়োজন হলে উভয় পাশের বিভিন্ন প্রজাতির দুই শতাধিক গাছ কাটতে হয়।

জানা যায়, বন বিভাগের উদাসীনতায় ওই কাটা গাছগুলো দীর্ঘদিন সড়কের পাশেই অযত্ন, অবহেলায় পড়ে থাকলে স্থানীয়রা তাদের সাথে যোগসাজশে রাতের আঁধারে শতাধিক গাছ চুরি করে নিয়ে যায়।

অভিযোগে আরও বলা হয়, বিষয়টি উপজেলা বন বিভাগকে একাধিকবার অবহিত করা হলেও তারা কর্ণপাত করেনি।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শনিবার বহরমপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি সদস্য নাসির উদ্দিন ওই সড়কের পাশে পড়ে থাকা ৭টি গাছ স্ব-মিলে নেওয়ার সময় এলাকাবাসী বাঁধা দেয়। তাতে ওই যুবলীগ নেতা ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের সাথে দুর্ব্যবহার করে বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি দেখায়।

আবেদনে আত্মসাৎ করা গাছগুলো উদ্ধার করে সরকারি সম্পত্তি হিসাবে জমা করার জন্য অনুরোধ করা হয়।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে অভিযুক্ত যুবলীগ সভাপতি নাসির উদ্দিন বলেন, দীর্ঘদিন মাটিতে দেবে থাকায় আমি গাছগুলো সরিয়ে রেখেছি।

বহরমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান সোহাগ বলেন, বিষয়টি বন কর্মকর্তাকে অবহিত করা হয়েছে এবং স্থানীয় জনগণ কয়েকটি গাছ আটক করেছেন। বাকী গাছগুলো ইতোমধ্যে বিভিন্ন সময়ে লুট হয়ে গেছে।

উপজেলা বন কর্মকর্তা অমিতাভ বসু বলেন, এ বিষয়ে আমাদের কেউ জানায়নি। গাছগুলো উদ্ধার করে জব্দ করা হবে বলে জানান তিনি।

দশমিনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. মহিউদ্দিন হেলাল বলেন, উপজেলা বন কর্মকর্তাকে বিষয়টি তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

আজকালের কন্ঠ /রাকিব

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »