দশমিনায় জন্মনিবন্ধনে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ

নিউজটি শেয়ার করুন

মোঃ মোশারফ হোসেন দশমিনা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি পটুয়াখালীর দশমিনায় জন্মনিবন্ধন ও ভুল সংশোধনের নামে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ উঠেছে মো. রিয়াজ উদ্দিন নামে এক ইউপি সচিবের বিরুদ্ধে। তিনি উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের
সচিব।

এ ঘটনায় ক্ষোভ ও অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে। তবে, অভিযোগ মানতে নারাজ ওই ইউপির চেয়ারম্যান ও সচিব।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানা যায়, শিশুর জন্ম থেকে ৪৫ দিন পর্যন্ত সরকারি নিয়মানুযায়ী জন্মনিবন্ধনের জন্য কোনো ফি নেওয়া হয় না। শিশুদের ৫ বছর বয়স পর্যন্ত ২৫ টাকা ও ৫ বছরের ওপরে সব বয়সীদের জন্য ৫০ টাকা ফি নেওয়ার নিয়ম করে দিয়েছেন সরকার।তবে, এসব নিয়মকে বৃদ্ধাঙ্গুগুলি দেখিয়ে।

উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের সচিব স্থানীয়দের থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করছেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই ইউনিয়ন পরিষদ সংশ্লিষ্ট একজন বলেন, ওই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. কাজী কালামের নির্দেশনায়ই (সচিব) অতিরিক্ত অর্থ আদায় করেন এছাড়া নতুন জন্মনিবন্ধনে ভুলের ছড়াছড়ি তো আছেই।

এ ঘটনায় ক্ষোভ ও অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যেই মো. ইদ্রিস মুন্সী নামে একজন অভিযোগ করেন, তাঁর ৪টি জন্মনিবন্ধনে জন্য ৮শ টাকা নিয়েছেন সচিব। আরও এক ভুক্তভোগী জানান, তার পরিবারের পাঁচ সদস্যর জন্মনিবন্ধনের জন্য তাকে সাড়ে ১২শ টাকা গুনতে হয়েছে অন্যদিকে, প্রায় ইউনিয়ন পরিষদের একই দশা বলে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে।

অভিযোগে বিষয় সচিব মো. রিয়াজ উদ্দিন বলেন, তিনি অতিরিক্ত কোন টাকা নেন না।

তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দেয়া হয়েছে।বাঁশবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান কাজী কালাম বলেন, তার নির্দেশে অতিরিক্ত টাকা নেয়া হয় এমন বিষয়টি সম্পূর্ণ মিথ্যা। অতিরিক্ত কোন টাকা নেয়া হয়না। তিনি আরো বলেন আগেই অতিরিক্ত কোন টাকা না নেয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

দশমিনা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মহিউদ্দিন আল হেলাল সাংবাদিকদের বলেন, প্রমাণসহ লিখিত অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »