ইলেক্ট্রিসিটি বিল কমানোর উপায়

নিউজটি শেয়ার করুন

অনেকের বাড়িতেই ইলেক্ট্রিসিটি বিল অনেক বেশি আসে। দুর্মূল্যের এই বাজারে ইলেক্ট্রিসিটি বিল বেশি হলে অনেকগুলো অতিরিক্ত টাকা খরচ হয়ে যায়। কিন্তু আপনি চাইলেই আপনার বাড়ির ইলেক্ট্রিসিটি বিল কমিয়ে আনতে পারেন। সেজন্য আপনাকে মেনে চলতে হবে কিছু বিষয়। ছোট ছোট কিছু দিকে খেয়াল রাখলে খুব সহজেই ইলেক্ট্রিসিটি বিল কমিয়ে আনা যাবে। চলুন জেনে নেওয়া যাক-

মাইক্রোওয়েভ ওভেন ব্যবহারের ক্ষেত্রে
রান্নার কাজ অনেকটাই সহজ করে দিয়েছে মাইক্রোওয়েভ ওভেন। এটি একটি ইলেক্ট্রিক চুলার তুলনায় অর্ধেক শক্তি খরচ করে। আপনি যদি খাবার তৈরি করতে দিয়ে কিছুক্ষণ পর পর চেক করতে ভালোবাসেন, তবু মাইক্রোওয়েভ ওভেন খুব ঘন ঘন খুলবেন না। কারণ একবার ওভেনের দরজা খুললে ২৫ ডিগ্রি করে তাপমাত্রা কমে যায়। এটি পুনরায় গরম হতে আবার ইলেক্ট্রিসিটি বিল খরচ হয়।

ইস্ত্রি ব্যবহারের ক্ষেত্রে
কাপড় সোজা করার জন্য ইস্ত্রি মেশিন তো ব্যবহার করা হয়ই। আর এই মেশিন ব্যবহারের কারণে ইলেক্ট্রিসিটি বিলও আসে একগাদা। আপনার ছোট ছোট কিছু কৌশল ইস্ত্রি ব্যবহারের পরও ইলেক্ট্রিসিটি বিল অনেকটাই কমিয়ে দিতে পারে তা কি জানতেন? ইস্ত্রি মেশিন কেনার ক্ষেত্রে অটোমেটিক তাপমাত্রা কেটে যায় এমন মেশিন কিনুন। ইস্ত্রি করার সময় কাপড় ভেজাবেন না। কাপড় ধোওয়ার পরপরই ইস্ত্রি করবেন না। এতে কাপড়গুলো স্যাঁতস্যাঁতে হতে পারে সেইসঙ্গে ইলেক্ট্রিসিটি বিলও বাড়িয়ে দেয়।

ফ্রিজ ব্যবহারের ক্ষেত্রে
অনেকে মনে করেন, ফ্রিজে যত কম জিনিস রাখা হবে, ততই বুঝি বিল কম আসবে। আসলে কিন্তু তা নয়। আপনার ফ্রিজটি যত পূর্ণ হবে, এটি তত বেশি শক্তপোক্ত ভাবে কাজ করবে। তাই ইলেক্ট্রিসিটি বিল কমাতে চাইলে ফ্রিজ খালি রাখবেন না। অনেকের অভ্যাস থাকে গরম খাবার ফ্রিজে রাখার। এটি করবেন না। তরল খাবার ফ্রিজে রাখার সময় ঢেকে রাখুন। নয়তো এগুলো আর্দ্র হয়ে কম্প্রেসারকে অতিরিক্ত চাপ ফেলতে পারে।

ওয়াশিং মেশিন ব্যবহারের ক্ষেত্রে
কাপড় ধোয়ার সুবিধার এখন অনেকের বাড়িতেই ওয়াশিং মেশিন থাকে। এটি যদি আপনি নোংরা কাপড় দিয়ে কানায় কানায় পূর্ণ করেন এবং এটি যে পরিমাণ ডিটারজেন্ট চেয়েছেন তা ব্যবহার করেন, তাহলে আপনার ওয়াশিং মেশিন সবচেয়ে কার্যকর হয়ে ওঠে। আপনার ওয়াশিং মেশিনের ৯০ শতাংশ শক্তি গরম করার কাজে লাগে। তাই ডায়াল ঠান্ডা করার কথা ভুলবেন না। এতে বিল কমাতে পারবেন।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »