রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১ । ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

যুদ্ধাপরাধীদের ৩ আসামিকে যাবজ্জীবন ও ৫ আসামিকে ২০বছর কারাদণ্ড

নিউজটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আজকালের কন্ঠ ডেস্ক : বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িত থাকায় ময়মনসিংহের গফরগাঁও ও ভালুকার তিন আসামিকে আমৃত্যু কারাদণ্ড এবং পাঁচ আসামিকে ২০ বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছে যুদ্ধাপরাধ আদালত।

এ মামলার নয় আসামির মধ্যে একজনকে খালাস দেয়া হয়েছে। আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে এ পর্যন্ত রায় আসা ৪২টি মামলার ১১৪ জন আসামির মধ্যে এই প্রথম কেউ বেকসুর খালাস পেলেন।

বিচারপতি শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল বৃহস্পতিবার এ মামলার রায় ঘোষণা করে। ট্রাইব্যুনালের অপর দুই সদস্য হলেন বিচারপতি আমির হোসেন ও বিচারপতি আবু আহমেদ জমাদার।

আসামিদের মধ্যে গ্রেপ্তার পাঁচজন রায়ের সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন। আর বাকি চার আসামিকে পলাতক দেখিয়েই এ মামলার বিচার চলে। পলাতক চার আসামির একজন রায় চলাকালে আদালতের বাইরে এসে ধরা দিয়েছেন বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

ট্রাইব্যুনালে প্রসিকিউশনের পক্ষে এ মামলাটি পরিচালনা করেন প্রসিকিউটর সাহিদুর রহমান। এছাড়া প্রসিকিউটর রানা দাশগুপ্ত, জেয়াদ আল মালুম, ঋষিকেশ সাহা, মোখলেছুর রহমান বাদল, সাবিনা ইয়াসমিন মুন্নী, রেজিয়া সুলতানা চমন, তাপস কান্তি বল রায় ঘোষণার সময় উপস্থিত ছিলেন।

আসামি আবদুল লতিফ, মো. শামসুজ্জামান ওরফে আবুল কালাম, রইছ উদ্দিন আজাদী ওরফে আক্কেল আলী ও আবদুল্লাহর আইনজীবী ছিলেন আবদুস সাত্তার পালোয়ান। পলাতক আসামিদের পক্ষে রাষ্ট্র নিযুক্ত আইনজীবী আবদুস শুকুর খান রায়ের সময় ট্রাইব্যুনালে ছিলেন না।

রায়ের পর প্রসিকিউটর সাহিদুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, প্রসিকিউশন এ মামলার চারটি অভিযোগই প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছে। প্রসিকিউশন রায়ে সন্তুষ্ট। আর ট্রাইব্যুনালের ইতিহাসে এই প্রথম খালাস পাওয়া আসামির বিষয়ে পূর্ণাঙ্গ রায় পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

আজকালের কন্ঠ /রাকিব

Print Friendly, PDF & Email
শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »